রাণীনগরের ৮ ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের ১৯ বিদ্রোহী প্রার্থী!

0
7

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচনে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার ৮ ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের ১৯ বিদ্রোহী প্রার্থী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়া আওয়ামীলীগ,জাতীয় পার্টি, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ এবং বিএনপি নেতারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোট ৫৪জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। গত ২১ অক্টোবর বাছাইয়ে ৫৪ প্রার্থীকেই বৈধ ঘোষনা করেছে নির্বাচন কর্মকর্তা ও
রিটানিং কর্মকর্তা। তবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিদ্রোহী প্রার্থীরা মনোনয়ন প্রত্যাহার না করলে সাংগঠনিক ব্যবস্থার কথা জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক।
জানাগেছে, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে প্রায় অর্ধশত মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেন। এর মধ্যে বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যানরা ও রয়েছেন। কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যানরা মনোনয়ন না পাওয়ায় সব ক’টায় নতুন মূখ দলীয় মনোনয়ন লাভ করেছেন। এর পর থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী
হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিতে হুমরি খেয়ে পরেন বিদ্রোহী প্রার্থীরা। সুত্র অনুযায়ী কালীগ্রাম ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সুবাস চন্দ্র সরকার,স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বাবলু মন্ডল এবং সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য আব্দুল ওহাব চাঁন। একডালা ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আলী,স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন উপজেলা যুবলীগের
সিনিয়র সহ-সভাপতি রুহুল আমিন,সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সদস্য আজিজুর রহমান,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা আব্দুল মজিদ
আকন্দ,ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমান বাবু
এবং শাহিনুর রহমান শাহি। পারইল ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরে আলম
সিদ্দীকি দুলাল,স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য সুজিত চন্দ্র সাহা এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুব ও ক্রিড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক। বড়গাছা
ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী বড়গাছা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন মাস্টার, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন ইউনিয়ন
আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিন মল্লিক। খট্রেশ্বর ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী যুবলীগ নেতা মরহুম গোলাম হোসেনের স্ত্রী চন্দনা সারমিন,স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল
করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদ নজমুল হক।
কাশিমপুর ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন,স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ
সম্পাদক আব্দুল মান্নান এবং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গফুর। গোনা ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ
মনোনিত প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা আব্দুল খালেক,স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আরিফ রাঙ্গা,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য আবু শায়েম এবং আওয়ামীলীগ নেতা জিয়াউর রহমান।মিরাট ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক
সম্পাদক জিয়াউর রহমান,স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য ও বর্তমান চেয়ারম্যান রফিকুল আলম ও ইউনিয়ন
আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ফখরুল হাসান। এছাড়া জাতীয় পার্টি ,ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশএর দলীয় প্রার্থী এবং বিএনপি নেতারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে মোট ৫৪ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল
করেছেন। গত ২১ অক্টোবর যাচাই-বাছাইয়ে ৫৪ প্রার্থীকেই বৈধ ঘোষনা করা হয়।
রাণীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলু বলেন,দলীয় নির্দেশনা ওপেক্ষা করে যারা মনোনয়ন দাখিল করেছেন তারা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মনোনয়ন প্রত্যাহার না করলে কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মোতাবেক সাংগঠনিকভাবে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রেজাউল ইসলাম ও রিটার্নিং কর্মকর্তারা জানিয়েছেন ২৬ অক্টোবর দাখিলকৃত মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন রয়েছে এবং ২৭ অক্টোবর প্রতিক বরাদ্ধ দেয়া হবে। আগামী ১১ নভেম্বর ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।