একটি সেতুর অভাবে দুর্ভোগে সমগ্র কলাবুনিয়াবাসী 

0
10

আরিফুল ইসলাম,রাঙামাটি, পার্বত্য রাংগামাটি জেলার বরকল উপজেলাধীন ৩ নং আইমাছড়া ইউনিয়নের উত্তর কলাবুনিয়ার কুটির শিল্প সংলগ্ন সেতুটি খুবই ঝুকি পূর্ন হয়ে আছে। যে কোন মূহুর্তেই বড় ধরনের দূঘটনা ঘটে যেতে পারে।অনেক চেস্টা তদবির করেও ব্রীজটার পুনঃনির্মান সম্ভব হয় নাই।

একটি সেতুর অভাবে দুর্ভোগে সমগ্র কলাবুনিয়াবাসী 
একটি সেতুর অভাবে দুর্ভোগে সমগ্র কলাবুনিয়াবাসী

এ বিষয়ে উক্ত এলাকাবাসীর পক্ষে অত্র এলাকার বাসীন্দা মো মনির লিডার জানান,২০১৬ সালে বড় বন্যায় পানির চাপে সেতুটি দুমরে মুচরে ভেঙ্গে পড়ে যায়, বিষয়টি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের মাধ্যমে বর্তমান সংসদ সদস্য জননেতা দীপংকর তালুকদার( এম পি) মহোদয়ের দৃষ্টি গোচর করানো হয় এবং এম পি মহোদয় ২০১৮ এর নির্বাচনি ইসতেহারে সেতুটি নির্মান করে দেওয়ার অঙ্গিকার ব্যাক্ত করলে ও শত ব্যস্থতার মাঝে ছোট এই অঙ্গিকারের কথাটি বেমালুম ভুলে গিয়েছেন বোধহয়।

যদিও এই দায়ভার এম পি মহোদয়ের একার নয়, এই ইউনিয়নের দলিয় নেতা কর্মিদের উপর ও বর্তায়, কারন কথায় আছে বাচ্চা কান্নাকাটি না করলে মা ও দুধ পান করাতে চান না, এখন যারা এলাকায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন তারা যদি নিজের অাখের গোছানো নিয়ে ব্যাস্থ থাকি তা হলে অামাদের সফলতা অাসবে কোথা হতে? যেহেতু অামাদের এই সেতুটির উপরে সম্পূর্ণ ইউনিয়নের মানুষ নির্ভরশীল , তারমধ্যে প্রাইমারি, হাইস্কুল মাদরাসা সহ হাজার হাজার মানুষের যাতায়াত এই একটি সেতু দিয়েই,

অাজকে এতটি বছর এই ইউনিয়নের মানুষ কি যে কষ্ট করছে তা কি অাপনাদের বিবেককে নাড়া দিচ্ছে না? অার বর্তমানে মানুষ যে রিস্ক নিয়ে যাতায়াত করছে, যদি কোন কারনেই একটি মানুষ পড়ে আহত বা নিহত হয় তা হলে এর দায়ভার কে নিবে,? অার ওই অসহায়ত্বের বোঝা কে বহন করবে? তাই সংশ্লিষ্ট মহোদয়দের দৃষ্টি আকর্ষন করছি। এই সেতুটি নির্মান পূর্বক অামাদের দীর্ঘদিনের হতাশা ও অনাকাঙ্খিত দূর্ঘটনা থেকে আমাদের রক্ষা করুন।

 

 

এ বিষয়ের আওয়ামী নেতা নাছিড় উদ্দিন মহারাজ জানান,উক্ত ব্রীজটা আমাদের কলাবুনিয়াবাসীর দীর্ঘদিনের দাবী। কলাবুনিয়ার কুঠি শিল্প সংগ্লন এলাকায় ২০১৬ সালের বন্যায় ভেঙে পড়ার ব্রিজটি আজকে ৫ বছর যাবত ভেঙ্গে মুখ থুবড়ে পড়ে আছে। অথচ এই এলাকার প্রানকেন্দ্র এই গনমুখী ব্রিজটি।

এই ব্রিজ টি দিয়ে ৬থেকে ৭টি গ্রামের লোকজন চলাচল করে যেমন, রতন কাবা,হেডবাড়িয়া,রামা ছড়া,বাংগাল টিলা,জারুল ছড়ি,১ নং উত্তর কলাবুনিয়া ,২ নং দক্ষিণ কলাবুনিযা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,নিকসেন্দ্রা সরকারি প্রাঃ বিঃ,কলাবুনিয়া নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়,দক্ষিণ কলাবুনিযা দারুল আর কাম মাদ্রাসা উল্লেখযোগ্য।

বর্তমানে কলাবুনিয়া বাজার রবিবার সাপ্তাহিক হাটকে কেন্দ্র করে পাহাড়ি বাঙ্গালি মিলে শত শত লোকের মানুষের সমাগম হয়। তাই অএ এলাকার মানুষের মনের দাবি প্রানের দাবী পাহাড়ি বাঙ্গালির আস্থা ও অহংকার জননেতা বাবু দীপংকর তালুকদার এমপি মহোদয় এর কাছে কলাবুনিয়া

কুঠির শিল্প এলাকায় একটি ব্রিজ পুর্ন নির্মান করার জোড় দাবি জানাচ্ছি। এরআগে গতবছর একবার উন্নয়নবোর্ডে ব্রীজটি নির্মানের জন্য আবেদন করেছিলাম।কিন্তু সেখান থেকে কোন রকম সহায়তা পাই না।বিগত কিছুদিন আগে আমি বিষয়টি রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মানিত সদস্য জনাব সবির কুমার চাকমা মহোদয়কে অবগত করেছি।তিনি আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন।