ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলাম তাণ্ডব চালায়নি : নায়েবে আমির

0
4

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:   গত ২৬-২৮ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলামের কোনো নেতাকর্মী তাণ্ডব চালায়নি বলে দাবি করেছেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মাওলানা সাজিদুর রহমান। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলাম তাণ্ডব চালায়নি

সোমবার (৫ এপ্রিল) দুপুরে ক্ষতিগ্রস্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এ দাবি করেন। হেফাজতে ইসলাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদরাসার সমন্বিত প্রতিনিধি দল আজ দুপুর ১২টার দিকে ভাঙচুরে ক্ষতিগ্রস্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব পরিদর্শনে আসেন।

এ সময় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন প্রতিনিধিদলকে সেদিনের নারকীয় ভাঙচুরের বর্ণনা দেন। এরপর ক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামি তার এবং অন্যান্য সাংবাদিকদের ওপর চালানো হামলার বিষয়টি হেফাজত ও মাদরাসা নেতৃবৃন্দের কাছে সবিস্তারে তুলে ধরেন।

তাণ্ডবের ঘটনায় দুঃখ পেয়েছেন উল্লেখ করে হেফাজতের নায়েবে আমির সাজিদুর রহমান বলেন, আমরা খুব দুঃখ পেয়েছি। কত দুঃখ পেয়েছি সেটি প্রকাশের ভাষা আমাদের নেই। ভাঙচুরের জন্য আমাদের কর্মসূচি ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। এ পেছনে থাকা প্রকৃত দোষীদের চিহ্নিত করে তাদের বিচারের জোর দাবি জানাই। কিন্তু কোনো নিরাপরাধ ব্যক্তিকে যেনো বিচারের নামে হয়রানি করা না হয়, আপনাদের (সাংবাদিক) মাধ্যমে আমরা প্রশাসনের কাছে তার দাবিও জানাই।

মাওলানা সাজিদুর রহমান আরো বলেন, হরতালের দিন আমাদের নেতৃবৃন্দের অবস্থান শুধু মাদরাসার সামনে ছিল। যারা এ ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে, ভিডিও ফুটেজ দেখে প্রকৃত দোষীদের বের করে শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। যারা সন্ত্রাসী কার্যকলাপ-ভাঙচুর করে, তারা কোনোদিন হেফাজতের হতে পারে না। আমরা সমস্ত ভাঙচুরের প্রতিবাদ জানাই।

জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদারাসার অধ্যক্ষ মুফতি মুবারক উল্লাহ বলেন, আমার যতটুকু বিশ্বাস-আমাদের কোনো মানুষ এটি (তাণ্ডব) করেনি। যারা এমন ন্যাক্কারজনক কাজ করেছে, সেটি তদন্তের মাধ্যমে বের করে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে নোমান হাবিবী, এনামুল হাসান, এরশাদুল্লাহ কাসেমী, মো. জাকারিয়া, তানভীর আহমেদ, আলী আজম ও বোরহান উদ্দিন কাসেমী প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।