নামের আগে উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তির ট্যাগ লাগিয়ে প্রতারণা

0
1

মোঃ শরিফুল ইসলাম (সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি ): সাতক্ষীরার পলাশপোল এলাকার বাসিন্দা বাদশা মিয়া। নিজেকে কখনো চিকিৎসক, আবার কখনো প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের ডিরেক্টর পরিচয় দিতেন। কখনো ক্ষমতাসীন দলের বিভিন্ন অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, কখনো বা কেন্দ্রীয় সভাপতি হিসেবে নিজেকে জাহির করতেন।

এছাড়া বিভিন্ন মানুষকে টাকার বিনিময়ে চাকরিতে পদোন্নতি, চাকরি পাইয়ে দেয়া এমনকি যেকোনো মামলার সুরাহা করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়াসহ বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। অবশেষে পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন তিনি। শনিবার (১ মে) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সাতক্ষীরা শহরের বাইপাস সড়ক এলাকা থেকে অস্ত্রসহ তাকে আটক ডিবি পুলিশ।

এ সময় তার দেয়ার তথ্যের ভিত্তিতে পার্শ্ববর্তী একটি দোকান থেকে একটি অস্ত্র, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিবের নকল নোট প্যাড, সিল, সংসদ সদস্যের ডিও লেটার ও বিভিন্ন প্রকার নিয়োগপত্র এবং জমাজমি সংক্রান্ত জালিয়াতির কাগজপত্র ও সিল উদ্ধার করা হয়। সাতক্ষীরা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) ইয়াছিন আলম চৌধুরী জানান, প্রতারক বাদশা মিয়াকে শহরের বাইপাস সড়ক এলাকা থেকে আটক করে ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়েছে।

এ সময় তার স্বীকারোক্তিতে একটি অস্ত্র ও জাল জালিয়াতির কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়।প্রেসব্রিফিং এর মাধ্যমে এই তথ্য জানানো হয়।