জাতির জনকের ম্যুরাল ভাঙচুর : অবশেষে যুবক গ্রেফতার

0
0

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের হরতাল চলাকালে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ভাঙচুরকারী যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

র‍্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা সদস্য ও র‍্যাব-১৪ এর সমন্বিত ফোর্স ৪ এপ্রিল(রবিবার) রাত ন’টার দিকে জেলার সদর উপজেলাধীন বিশ্বরোড এলাকা থেকে আটক করা হয়।

পরবর্তীতে অভিযান চালিয়ে বিদেশি পিস্তল, গুলি ও ম্যুরাল ভাঙার শাবল, মাদকদ্রব্য ইত্যাদি জব্দ করা হয়।

আজ বেলা সাড়ে ৪টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে এ বিষয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে র‍্যাবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিস্তারিত জানান র‍্যাব-১৪’র অধিনায়ক আবু নাঈম মো. তালাত। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, গ্রেফতার হওয়া যুবকের নাম আরমান আলিফ (২০)।

সে জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়নের ফুলখাঁর কান্দি গ্রামের শুক্কুর আলীর ছেলে। সে পৌর শহরের কাজীপাড়া এলাকায় থাকতো।

র‍্যাবের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, মুজিব বর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর মাহেন্দ্রক্ষণে জাতির পিতার ম্যুরালে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা খুবই ন্যক্কারজনক।

দেশকে অস্থিতিশীল করে তোলার এক সুক্ষ্ম ষড়যন্ত্রের অংশ এই হামলা। গত ৩ এপ্রিল থেকে চলা নিরবচ্ছিন্ন অভিযানের ফলশ্রুতিতে ৪ এপ্রিল রাত নয়টায় বিশ্বরোড এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ম্যুরাল ও অভিযুক্তের ছবি এবং তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির মাধ্যমে তার সম্পৃক্ত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হয়।

পরবর্তীতে আসামীর দেয়া তথ্যমতে ৫ এপ্রিল(সোমবার) ভোর সাড়ে ৪টায় শহরের কাজীপাড়ায় ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়ে ম্যুরাল ভাঙ্গার কাজে ব্যবহৃত শাবল, একটি অবৈধ পিস্তল, দুটি ম্যাগাজিন, চার রাউণ্ড গুলি উদ্বার করা হয়।

ঘটনার পর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে সে নিজের বেশভূষা পরিবর্তন করে। তার নির্দিষ্ট কোন পেশা নেই উল্লেখ করে বলা হয় নাশকতা সৃষ্টি করাই তার উদ্দেশ্য।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সহ দেশের সব জায়গায় নাশকতা সৃষ্টিকারীদের দমনে র‍্যাবের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন র‍্যাব-১৪ অধিনায়ক।

এসময় কোম্পানি কমান্ডার এএসপি জুবায়ের সহ অন্যান্য সদস্যরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।