ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের দায় হেফাজতে ইসলামেরই : জেলা ছাত্রলীগ

0
0

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : গত ২৬-২৮ মার্চেত তাণ্ডব নিয়ে মিথ্যাচারের জেরে হেফাজতে ইসলামের নেতৃবৃন্দকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে বলেছেন জেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

এদিকে তারা আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা না চাইলে তাদের জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতা আইনে মামলা করার কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের নেতারা। আজ শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনকালে এই হুশিয়ারি বার্তা প্রদান করেন তারা।

১৮ মামলায় আসামী ২০ হাজার

এর আগে গত ৫ এপ্রিল ব্রাহ্মণবাড়িয়া পরিদর্শনে এসে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মাওলানা সাজিদুর রহমান হেফাজতের কেউ তাণ্ডবে জড়িত নয় বলে দাবি করেন ।

এরই প্রেক্ষিতে আজ হেফাজতের মিথ্যাচারের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভন তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, হেফাজত নেতারা ঘটনার শুরু থেকেই মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে সাধারণ ধর্মপ্রাণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।

আমরা তাদের এ বক্তব্যকে মিথ্যাচার ও অপরাজনৈতিক কৌশল বলে মনে করি। তিনি আরো বলেন, ২৬ থেকে ২৮ মার্চের সকল তাণ্ডবের ভিডিও ফুটেজ ও স্থিরচিত্র গণমাধ্যমে এসেছে।

তারা মিথ্যা বক্তব্য দিয়ে ধর্মপ্রাণ মানুষকে মর্মাহত করেছে। এ সময় ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় উচ্চতর বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন। হেফাজতের মিথ্যাচারের দায় কেবল তাদেরই উল্লেখ করে জড়িতদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার এবং তাদের বিচারের আওতায় আনার দাবিও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।