লালমনিরহাটে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্যের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড

0
0

প্রদীপ কুমার রায়, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেন সবুজ (২৫) এর যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) সকাল ১১টায় লালমনিরহাটের দায়রা জজ ও বিচারক (সন্ত্রাস বিরোধী ট্রাইবুনাল-এক) মোঃ মিজানুর রহমান এই রায় দেয়। সাজাপ্রাপ্ত আসামী মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেন সবুজ লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের ভোটমারী গ্রামের মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের পুত্র।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী বাজার সংলগ্ন হানিফ চেয়ারম্যানের বাড়ির পাশে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেন সবুজের নেতৃত্বে ৪/৫জন জঙ্গি নাশকতামূলক তৎপরতা চালাতে গোপন বৈঠক করছে। রংপুর র‍্যাব-১৩ এস আই সুবীরের নেতৃত্বে র‍্যাবের টিম সেখানে অভিযান চালায়। র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ৪/৫জন জঙ্গি পালিয়ে যায়। র‍্যাব নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন বাংলা টিমের দলনেতা মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেনকে আটক করে। এ ঘটনায় ২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর কালীগঞ্জ থানায় র‍্যাবের এসআই সুবীর বাদী হয়ে মামলা দায়ে করে। একই দিন মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করে কালীগঞ্জ থানার এসআই মোঃ মতিয়ার রহমান। পরে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে রংপুর র‍্যাব-১৩ সহকারী পুলিশ সুপার আহসান হাবীব দ্বিতীয় বার তদন্তভার গ্রহণ করে। তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ১০ জানুয়ারি অস্ত্র আইনে চার্জ গঠন করে আদালতে দাখিল করা হয়। মামলা টি প্রমাণে ১৫জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ ও রাষ্ট্র পক্ষের সাক্ষীগণকে আসামী পক্ষের আইনজীবী জেরা করেন। ২০২০ সালের ১৮ মার্চ আসামী মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র পক্ষের পিপি ও আসামী পক্ষের আইনজীবী উপস্থিতিতে বিচারক দন্ডযোগ্য অপরাধে অভিযোগ গঠন করে।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পিপি অ্যাড. আকমল হোসেন আহম্মেদ জানান, সাক্ষ্য প্রমাণ শেষ বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) সকাল ১১টায় আসামী মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেনের উপস্থিতিতে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দেয় বিচারক। ইতোমধ্যে কারাগারে বন্দিজীবনের সময়কে এই রায়ে সাজা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেছে। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন পিপি অ্যাডভোকেট আকমল হোসেন আহম্মেদ ও আসামী পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট গোলাম মোস্তফা।
আসামী পক্ষের আইনজীবী গোলাম মোস্তফা জানান, এই রায়ের বিপক্ষে আসামীর স্বজনরা উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।