সিলেট সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন পালন

0
2

সিলেট প্রতিনিধি, মোস্তফা মারুফ :

“শিক্ষা নিয়ে বৈষম্য মানিনা মানবো না” এই স্লোগান নিয়ে সিলেট সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ডিপ্লোমা শাখার শিক্ষার্থীদের মানবন্ধন পালন। তারা বিভিন্ন দাবি নিয়ে মানববন্ধন পালন করে। এর মধ্যে কয়েকটি হলো সরকারকে শিক্ষা নিয়ে বৈষম্য দূর করতে হবে, ডিপ্লোমা পর্যায়ের বিভিন্ন স্থগিত পরীক্ষা দ্রুত নেওয়া ও সকল পর্বের ক্লাস অবিলম্বে চালু করা ইত্যাদি। বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদ (বাকাছাপ), সিলেট সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (এস.টি.এস.সি) শাখার সহ-সভাপতি বিপ্লব চন্দ্র দেব সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- বাকাছাপ, এস.টি.এস.সি শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোস্কাকিম উজ্জামান, সহ- মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মুক্তা রাণী পাল, মোস্তফা মারুফ প্রমুখ। × এখানে লিখুন… সিলেট বিস্তারিত ক্লাস-পরীক্ষার দাবিতে সিলেট টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন সিলেট প্রকাশিত : ০৫ জুন, ২০২১ ১৭:৪৫ সিলেট :: ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং এর সকল পর্বের ক্লাস অবিলম্বে চালু করা ও স্থগিত সকল পর্বের ফাইনাল পরীক্ষা নেওয়া দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে শনিবার (৫ জুন ২০২১) সকাল ১১টায় সিলেট সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ প্রাঙ্গণে সাধারণ শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদ (বাকাছাপ), সিলেট সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (এস.টি.এস.সি) শাখার সহ-সভাপতি বিপ্লব চন্দ্র দেব সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- বাকাছাপ, এস.টি.এস.সি শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোস্কাকিম উজ্জামান, সহ- মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মুক্তা রাণী পাল প্রমুখ। তারা জানান, করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘ প্রায় ১১ মাস তারা শিক্ষা-কার্যক্রম থেকে দূরে ছিলেন। এতে সেশনজটের সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে গত ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে তাদের পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হলেও হঠাৎ গত ০৫ এপ্রিল থেকে চলমান সব পরীক্ষা স্থগিত করে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। শিক্ষার্থীরা বলেন, শিক্ষা নিয়ে বৈষম্য আমরা আর মানিনা এবং মানবো না। দ্রুত আমাদের ক্লাস চালু করতে হবে এবং স্থগিত পরীক্ষা নিতে হবে। বার বার পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করায় অনেক শিক্ষার্থী ক্ষতিগ্রস্থ। তারা আরও জানান, কারিগরি শিক্ষা বোর্ড সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক পরীক্ষা স্থগিত করেছে। কিন্তু পরীক্ষা স্থগিত করার ফলে সেশনজটসহ নানা সমস্যায় শিক্ষাজীবন দীর্ঘায়িত হবার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। তাই প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আহ্বান ক্লাস কার্যক্রম চালু না হলেও পরীক্ষা চলমান রাখার ওপর স্থগিতাদেশ তুলে নেওয়া হোক। মানববন্ধন ও ছাত্র সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন- বাকাছাপ, এস.টি.এস.সি শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ইমন, সহ- শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক হুসনা বেগম, বিভাগীয় প্রতিনিধি আবু তাহের, আব্দুর রহমান প্রমুখ