শেরপুরের সুমাইয়া সুলতানা আখি মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় নবম স্থান অধিকার

0
0

শেরপুর প্রতিনিধিঃশেরপুর জেলার সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের মধ্যবয়ড়া কানাশাখোলা নামাপাড়া গ্রামের সেনাবাহিনীর ওয়ারেন্ট অফিসার মোঃ আলকাছ আলী ও মোছা. তাজমুন নাহারের প্রথম কন্যা সুমাইয়া সুলতানা আখি ২০২১ সালের মেডিকেলে (এমবিবিএস) ভর্তি পরীক্ষায় জাতীয় মেধা তালিকায় নবম স্থান অধিকার করেছে। শেরপুর জেলার গর্ব সুমাইয়া সুলতানা আখি এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করে। সে ২০১৫ সালের জেএসসি পরীক্ষায় ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, কুমিল্লা সেনানিবাস থেকে গোল্ডেন জিপিএ ৫.০০ পেয়েছে। ২০১৮ সালে ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ থেকে সাফল্যের সাথে এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ ৫.০০ পেয়েছে।

শেরপুরের সুমাইয়া সুলতানা আখি মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় নবম স্থান অধিকার
শেরপুরের সুমাইয়া সুলতানা আখি মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় নবম স্থান অধিকার

২০২০ সালে ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, কুমিল্লা সেনানিবাস থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ ৫.০০ পেয়েছে। ছোট বেলা থেকেই আখির জীবনের লক্ষ্য বড় হয়ে সে ডাক্তার হবে এবং গরিব, দুঃখী ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াবে এবং সেবা করবে। আখির এই অভাবনীয় সাফল্যে পুরো এলাকাযবাসী আনন্দে মুখরিত হয়ে ওঠেছেন।

আখির বড় মামা ময়ছর আলী জানান, আখি সকালবেলা উঠে নামাজ পড়ে এবং কুরআন শরীফ পড়ে লেখাপড়া শুরু করে। আমাদের এই ভাগ্নি আমাদের গৌরব।

আখির মেজ মামা হারুনুর রশিদ ভাগ্নির ভাল ফলাফলে সবাইকে মিষ্টি বিতরণ করেন । ভাগ্নির জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

আখির এ সাফল্যে গর্বিত ভাতশালা ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে তরুণ সাংবাদিক ও শেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রথম শ্রেণির ঠিকাদার আমিনুল ইসলাম রাজু আখিকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। রাজু বলেন, আমাদের মেয়ে আখি আমাদের গৌরব, আমাদের এলাকার অহংকার। তাকে অভিনন্দন জানাই।