নড়াইলে যুবলীগ নেতা হত্যার বিচারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

0
2
শাহীনুজ্জামান ,নড়াইল জেলা প্রতিনিধিঃ
নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার চর মল্লিকপুর গ্রামে যুবলীগ নেতা পলাশ মাহমুদ হত্যাকান্ডের বিচারের দাবিতে স্ত্রী ও মা বাবার সংবাদ সন্মেলন করেছে। এক মাসের শিশু সন্তানকে রেখে সন্ত্রাসীদের হাতে নির্মমভাবে নিহত হন পলাশ মাহমুদ। বিধবা হলেন তার স্ত্রী, সন্তান হারা হলেন মাতা পিতা, ভাই হারা হলেন বোন । নড়াইলের লোহাগড়ায় যুবলীগ নেতা পলাশ মাহমুদ হত্যা মামলার আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করলেন তার পরিবার। পরিবারের পক্ষথেকে লিখিত দাবি পাঠ করে স্ত্রী জরিনা আকতার বলেন পলাশ হত্যা মামলার আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং মামলা তুলে নেয়ার জন্য নিহত পরিবারের সদস্যদের হুমকি দিচ্ছে বলে জানান। ৩০ অক্টোবর শনিবার বিকাল চারটায চর মল্লিক পুর গ্রামের নিজ বাড়িতে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহত যুবলীগ নেতা পলাশের স্ত্রী জেরিন আক্তার। এসময় উপস্থিত ছিলেন নিহত পলাশের পিতা খোকন শেখ, মা পলি বেগম, বোন শিখা ও ছোট ভাই পিয়াস শেখ সহ নিকট আত্মীয় স্বজনরা। তাদের কান্নায় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকরাও চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি। জানা যায় গত সোমবার ২৫ অক্টোবর রাত ৯ টার দিকে পলাশ মাহমুদ লোহাগড়া থেকে চরমল্লিকপুর গ্রামের রুবেল শেখের দাওয়াতে ঐ গ্রামের আরেক বন্ধু রমজানের বাড়ীতে যায়। এ সময় দূর্বৃত্তরা কৌশলে পলাশকে ডেকে নিয়ে রাস্তার পাশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মুখ,মাথা, ঘাড় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় এলোপাথাড়ী ভাবে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী পলাশকে উদ্ধার করে লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন । এ ঘটনায় ২২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরো ৮ জন আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন নিহতের মা। পলাশ চর মল্লিকপুর গ্রামের খোকন শেখের ছেলে এবং উপজেলা যুবলীগের একজন নেতা ছিলেন। লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু হেনা মিলন জানান, মামলার এজাহারভূক্ত আসামীরা পলাতক রয়েছে, তাদের আটকের জন্য জোর চেষ্টা চলছে বলে জানান।