ভোটের মাঠে নেত্রকোণার কলমাকান্দায় দুই পক্ষের সংঘর্ষ;আহত-১০

0
1

বিপুল জামান লিখন,নেত্রকোণা প্রতিনিধি

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।এতে অন্তত দশ জন আহত হয়েছেন। (২১ নভেম্বর) শনিবার রাতে রংছাতি ইউনিয়নের বেতগড়া ও বরুয়াকোনা এলাকায় দু’দফায় ধাওয়া পাল্টা হয়।

এ সময়
আহত হাসান আল মামুন (৩৫), মাসুদ (৩৮), দেলোয়ার হোসেন (৩৪), মুজিবর রহমান (২৮), আশ্রাফুল ইসলাম জনি (২৭) ও তোতা মিয়াসহ (৩৫) বেশ কয়েকজন আহত হয় এবং তাদের উপজেলার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

  1.  স্থানীয় লোকজন জানান, নির্বাচনী প্রচারণাকে কেন্দ্র করে শনিবার রাতে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী তাহেরা খাতুনের কর্মী-সমর্থক ও অপর মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী হাসান আল মামুনসহ তার কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংর্ঘষ বাধে। এসময় দু’পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। আহত ব্যাক্তিদের মধ্যে ৫জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
    নৌকা প্রতীকের প্রার্থী তাহেরা খাতুন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক। আর মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী হাসান আল মামুন উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।
    এ নিয়ে তাহেরা খাতুন বলেন, শনিবার রাতে আমার লোকজন নির্বাচনী প্রচারে বের হলে সতন্ত্র প্রার্থী হাসান আল মামুনের নেতৃত্বে আমার লোকজনের উপর হামলা চালায়।
    এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাসান আল মামুন বলেন, এলাকায় আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে নৌকা প্রতীকের লোকজন আমাকে প্রায় সময়ই হুমকি-ধমকি দেন। শনিবার রাতে নির্বাচনী প্রচারে গেলে তারা আমাকে ও আমার কর্মী-সমর্থদের মারপিট করে।
    কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল আহাদ খান জানান, এখনো কোন অভিযোগ পাননি। তবে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। নির্বাচনী এলাকায় পুলিশ টহল জোরদার করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।