গাজীপুরে পুলিশ ও হেফাজতের সঙ্গে সংঘর্ষ আহত ২০

0
2

মোন্তাজুর রহমান(স্টাফ রিপোর্টার): গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীর সঙ্গে পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ ঘটনায় পুলিশ ও হেফাজতের নেতাকর্মী ও সমর্থকসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন বলে তথ্য পাওয়া গেছে।

এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। হেফাজতের আন্দোলনকারীরা তথ্য দিয়েছেন, হাটহাজারী, ঢাকা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নেতাকর্মী ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের হতাহতের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবেই জুমার নামাজের পর তারা বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এতে পুলিশ বাধা দিয়ে লাঠিচার্জ প্রয়োগ করেন।

এক পর্যায়ে দু’পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ শুরু হয়। জিএমপি’র বাসন থানার ইন্সপেক্টর মিজানুর রহমান জানান, বিক্ষোভ মিছিল থেকে পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে তারা পাল্টা জবাব দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনার চেষ্টা করে।

হেফাজতে ইসলামের গাজীপুর জেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মুফতি নাসির উদ্দিন খান আমাদের জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে জুমার নামাজের পর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশের ঈদগাহ ময়দানে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের জন্য অবস্থান নেন নেতা কর্মীরা। এ সময় কর্মীদের লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেট ছুড়ে পুলিশ।

এতে প্রায় ২০-২৫ জন কর্মী আহত হয়েছেন। গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপকমিশনার জাকির হাসান বলেন, হেফাজতের কর্মীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করেন। তাঁদের মহাসড়ক ছেড়ে যেতে বললে তাঁরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকেন।

তিনি জানান, পরে তাঁদের সঙ্গে পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ শতাধিক টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেন। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। প্রতিপক্ষের ইটপাটকেলে কমপক্ষে আটজন পুলিশ আহত হয়েছে বলে তথ্য বলে তথ্য পাওয়া গেছে।