ঘোগাদহে জেএসসি রেজিস্ট্রেশনের নামে অতিরিক্ত ফি আদায়

0
16

খালিদ আহমেদ রাজা:

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার ঘোগাদহ ইউনয়নে আসন্ন জেএসসি-২০২১ পরীক্ষার্থীদের অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত এক বছরের অধিক সময় ধরে করোনা মহামারীতে বিশ্ব অর্থনীতির কাঠামো ভেঙে পড়েছে। করোনা কালীন এ সময়ে কর্মহীন হয়ে পড়েছে লক্ষ লক্ষ মানুষ। বাংলাদেশের সবচেয়ে দরিদ্রতম জেলা কুড়িগ্রাম। সরকারি হিসেব মতে এখানকার শতকরা প্রায় ৭১ ভাগ মানুষ দারিদ্রসীমার নিচে বাস করেন। বৈশ্বিক এ মহা সঙ্কট কালেও এ অঞ্চলের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে অতিরিক্ত অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন সময় এরকম অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের কারণে দরিদ্র অভিভাবকরা তাঁদের সন্তানের পড়ালেখার খরচ যোগাতে হিমশিম খাচ্ছেন বলে এলাকাবাসী মন্তব্য করেছেন। জানা গেছে কোনোরকম আদায় রশিদ ছাড়াই শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রকার ভেদে ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা করে রেজিস্ট্রেশন ফি আদায় করছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো।

গত ১২ এপ্রিল ২০২১ খ্রি. মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড দিনাজপুরের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তি মারফত জানা যায় বিল্ব ফি ব্যতিত শিক্ষার্থী প্রতি মোট রেজিস্ট্রেশন ফি একশত চার টাকা এবং বিদ্যালয় ক্রীড়া মঞ্জুরী ফি তিন শত টাকা (বিদ্যালয় প্রতি) ও বিশ্ব স্কাউটস ফি দুই শত ত্রিশ টাকা (বিদ্যালয় প্রতি) নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়াও গত ২১ এপ্রিল ২০২১ খ্রি. কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত জেএসসি রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত এক বিজ্ঞপ্তিতে দেখা যায়, শিক্ষার্থী প্রতি সাকুল্য নিবন্ধন ফি এক শত ত্রিশ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক রশিদ ব্যতিত অতিরিক্ত ফি আদায়ের ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

 

ঘোগাদহ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম মণ্ডলের সাথে যোগাযোগ করলে এ বিষয়ে কোনোরূপ মন্তব্য প্রদানে অনিহা প্রকাশ করেন তিনি।

 

কুড়িগ্রাম জেলা শিক্ষা অফিসার মো. শামছুল আলম মুঠোফোনে এ প্রতিবেদককে জানান, আসন্ন জেএসসি পরীক্ষায় জেলার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে সরকারি নির্ধারিত ফি অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নিবন্ধন ও ফরম পূরণে টাকা নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান জেএসসি পরীক্ষায় নিবন্ধন বা ফরম পূরণের নামে অন্য কোন বিষয়ে অতিরিক্ত অর্থ নেয়ার কোন বিধান নেই। এ বিষয়ে অভিযোগ পাওয়া গেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।