খুলনার দাকোপ উপজেলায় চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ৩০মে পর্যন্ত ১৪৪ দিনে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত

0
2

তানভীর হোসেন, খুলনা সদর:

খুলনার দাকোপ উপজেলায় চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ৩০মে পর্যন্ত ১৪৪ দিনে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত, এরপরের ১৫ দিনে (২৫ মে থেকে ৮ জুন) শনাক্ত হয়েছে ৩৩ জন। সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় উপজেলায় কড়াকড়িভাবে বিধিনিষেধ আরোপ করার চিন্তা করছে উপজেলা প্রশাসন।

খুলনা শহর থেকে দক্ষিণে সুন্দরবন–সংলগ্ন জনপদ দাকোপে করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। তবে জনবহুল স্থান, হাটবাজারসহ বিভিন্ন স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই নেই। এদিকে উপজেলার চুনকুড়ি নদ দিয়ে ভারতে যাতায়াতকারী দেশি-বিদেশি কার্গো, লাইটার জাহাজ চালনা এলাকায় নোঙর করে লোকজন মাঝেমধ্যে ওপরে উঠে আসায় করোনার ডেলটা ধরন (ভারতীয়) ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক প্রথম আলোকে বলেন, সংক্রমণ বাড়ছে। কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হচ্ছে। তবে চেষ্টা করলেও মানুষ সচেতন হচ্ছে না। সচেতন-শিক্ষিতরাও বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না। মানুষ জ্বর-কাশি নিয়ে আসছেন। তাঁরা র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের কথা বলছেন। অনেকে করছেন, অনেকে চলে যান। তাঁদের অনেকের ভয় বাড়ি আটকিয়ে দেয় কি না। চলাফেরায় বাধানিষেধ দেয় কি না।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বলেন, ‘অবস্থা খারাপ বলা যায়। এখন জেলা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে দাকোপে হার্ডলাইনে চলে যাব। পরিকল্পনা করে রাখছি। সার্বিক প্রস্তুতি আছে। নির্দেশনা পেলে উপজেলাজুড়ে কড়াকড়িভাবে বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে।