হলুদ সাংবাদিক ইয়াসিনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরূদ্ধে ফুসে উঠেছে এলাকাবাসি

0
0

মাসুদ পারভেজ, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ-

বাগেরহাটের ফকিরহাটে কথিত হলুদ সাংবাদিক
কাজী ইয়াছিন এ জেন এক ভয়ানক চরিত্রের অধিকারী। রুপকথার কাল্পনিক চিরিত্রকেও হার মানিয়েছে।

কাজী ইয়াছিন ফকিরহাটে এসেছিল শুন্যহাতে এসে এই উপজেলাতে বিয়ে করে শশুর বাড়িতে ঘর জামাই থেকে শুরু করে সংবাদিক পেশা।আর সেই সাংবাদিকতা পেশাকে সাইনবোর্ড হিসাবে ব্যাবহার করে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন জায়গায় আবাসিক হোটেল ব্যাবসা পরিচালনা করে সেখানে মদ এবং পতিতাবৃত্তির ব্যাবসা পরিচালনা করে বুনে যান লাখোপতি।

এছাড়াও সংবাদ প্রকাশের ভয় দেখিয়ে নিরীহ মানুষের কাছ থেকে চাঁদাবাজী করে হাতিয়ে নিয়েছে লক্ষ লক্ষ টাকা।শতখানেক মেয়ে তার যৌন লালসার সিকার হয়েছে।

সর্বশেষ ফকিরহাট বিশ্বরোড মোড়ে একজনের মালিকানা বিল্ডিং ভাড়া নিয়ে খাবারের হোটেল পরিচালনা করে আসছিল।হঠাৎ সাংবাদিকতার ক্ষমতা দেখিয়ে উক্ত হোটেল মালিক কে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে জোর জবরদখল করে রেখেছে তার বিডিং।এবং বলছে যদি আমার কাছ থেকে নিতে চাস তাহলে তোকে জানে মেরে ফেলবো।এ জেন এক সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে ফকিরহাট মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

এলাকার সচেতন মহলের জানতে চাই এই লম্পট ইয়াছিন কোন পত্রিকার সাংবাদিক? নাকি শুধু ফেসবুক সাংবাদিক?কেও তার কোন নিউজ পত্রিকায় দেখতে পারে নাই?

এ ছাড়াও এই মুখোশধারী ইয়াছিন এর একাধিক লোমহর্ষক কমকান্ডের তথ্য রয়েছে যা ধারাবাহিক ভাবে জনসম্মুখে তুলে ধরা হবে।
তাই প্রশাসনের কাছে সচেতন মহলের দাবি অপকর্মের মুল হোতা কাজী ইয়াছিনকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হোক।