রাণীনগরে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

0
7

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার ৮২ নং ছাতারদিঘী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সৈয়দা হাসিনা আনোয়ারের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতৎ ও দূর্নীতির অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও সদস্যরা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসসহ বেশ কয়েকটি দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
জানাগেছে,ছাতারদিঘী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনার জন্য গত ২০২০ইং সালে কমিটি গঠন করা হয়। এর পর নিয়ম অনুযায়ী প্রধান শিক্ষক সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ওই বিদ্যালয়ের নামে ব্যাংকে হিসাব চালু আছে এবং বিদ্যালয়ের নামে সরকারী অনুদান ও স্থানীয় হিতৈষীবর্গের অনুদানের অর্থ ব্যাংকের হিসাব নাম্বারে জমা রাখা হয়। কিন্তু ব্যাংক থেকে যৌথ স্বাক্ষরে টাকা উত্তোলনের পর বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সদস্য সচিব সৈয়দা হাসিনা আনোয়ার কি কি খাতে খরচ করেছেন তা কমিটিকে জানাননি এবং ভাউচার অনুমোদনও করে নেননি। অভিযোগে দাবি করা হয়,সৈয়দা হাসিনা আনোয়ার গত বছরের ৩০ জুন ব্যাংক থেকে ৬৩ হাজার এবং একই বছরের ১৭ আগষ্ট আরো ২৬ হাজার টাকাসহ মোট ৮৯হাজার টাকা উত্তোলনের পর উন্নয়ন খরচ না
করে আত্মসাৎ করেছেন।
বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আফজাল হোসেন বলেন,টাকা অত্মসাৎ ও বিভিন্ন দূর্নীতির অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সৈয়দা হাসিনা আনোয়ারের বিরুদ্ধে রাণীনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস,জেলা প্রসাশক,জেলা পুলিশ সুপার,জেলা দূর্নীতি দমন কমিশন ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিপ্তর বরাবর কমিটির আরো ৬ সদস্য স্বাক্ষর করে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। আসা করছি সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক উপযুক্ত বিচার মিলবে। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সৈয়দা হাসিনা আনোয়ার অভিযোগ
অস্বীকার করে বলেন,সভাপতি এবং আমার যৌথ স্বাক্ষরেই ব্যাংক থেকে টাকা তুলে বিদ্যালয়ের উন্নয়ন করেছি যাহার যথাপুযুক্ত হিসাব এবং বিল ভাউচার রয়েছে। এছাড়া বিদ্যালয়ের উন্নয়নমূলক কাজ করতে গিয়ে নিজের থেকেই আরো অতিরিক্ত ১০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে দাবি করে বলেন,সভাপতির সাথে পারিবারিক দ্বন্দ্ব রয়েছে। যে কারনে আমাকে হয়রানি করতেই নানান রকম মিথ্যে অভিযোগ তুলছেন।
রাণীনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন,ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্তের জন্য দুই সদস্য বিশিষ্ঠ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং দ্রুত তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে অভিযোগ প্রমানিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।