আবারো লকডাউন বিপাকে খেটে খাওয়া মানুষ

0
0

রাজ-কুমার দেব, রাজার হাট উপজেলা প্রতিনিধিঃ- করোনা মহামারিতে বাংলাদেশ এখন লকডাউন বিপাকে খেটে খাওয়া মানুষ এবং যানবাহনের চালকরা।
আমার এমনি একজন রিকশা চালকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি তার বর্তমান পারিবারিক আয়ের অবস্থা,
তিনি আমাদের বলেন রিকশা চালিয়ে সংসার এবং ছেলে মেয়েদের চাহিদা মেটান কোনরকমে একদিন রিকশা না চালাতে পারলে ভাত জুটে না।
তাতে আবারও দিছে লকডাউন জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে কেউ বেড়াচ্ছেন না।

সংসার কিভাবে চালাবেন এই চিন্তায় রিকশা চালক আইয়ুব আলী সহ আরো অনেকেই।
তারা বলতেছেন এই লকডাউন যদি গত বারের মতো দীর্ঘদিন হয় তাহলে পথে বসতে হবে।

এদিকে রাজার হাটে আমরা দেখতেছি আগের তুলনায় মানুষের ভীড় অনেক কম জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কেউ আসতেছে না সব দোকান পাট বন্ধ তবে খোলা আছে কাঁচা বাজার ডাক্তার খানা ও মুদি দোকান।
অধিকাংশ দোকানে ক্রেতাদের জন্য আছে জীবাণুনাশক বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা।

করোনা মহামারি সচেতনতা করার লক্ষে রাজার হাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সচেতনতা মূলক মাইকিং করেন।

এছাড়াও করোনা সচেতনতার লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে,
“স্টুডেন্টস্ ব্লাড ডোনার সোসাইটি” নামে একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন তারা তাদের নিজস্ব অর্থে ফেস মাস্ক পোস্টার এবং লিফটের সাহায্যে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।