মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের দ্বিতীয় বর্ষে পদার্পণ

0
5

সময়েরপাতা ডেস্ক:

টিনেইজারর্স মেন্টাল হেলথ্ ম্যাটার্রস- এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে সফলতার সহিত মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের দ্বিতীয় বর্ষে পদার্পণ ১৩ থেকে ১৯ বছরের কিশোর-কিশোরীদের মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে গত ২৫ শে জুন, ২০২০ সালে করোনা মহামারির প্রকোপের সময় ‘মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার’ নামক একটি ননপ্রফিট সংগঠনের যাত্রা শুরু হয়। সংগঠনটির নীতিবাক্য – টেক কেয়ার অব ইয়োর মেন্টাল হেলথ্ (আপনার মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন নিন)। এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাশফিয়া কাওসার মীম ঢাকার ইডেন মহিলা কলেজের মনোবিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী এবং শিক্ষানবেশ মনোবিজ্ঞানী হিসেবে অধ্যয়নরত আছেন। মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের ম্যানেজিং ডিরক্টর হিসেবে কর্মরত আছেন গোলাম মোর্শেদ রাতুল। এছাড়াও, মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের রয়েছে একটি শক্তিশালী উপদেষ্টা কমিটি। দেশের অনেক স্বনামধন্য স্কুল-কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের উপদেষ্টা-সদস্য হিসেবে যুক্ত আছেন যাদের দিকনির্দেশনায় সংগঠনটির সকল কার্যক্রম সম্পাদিত হচ্ছে। এই সংগঠনের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে কিশোর-কিশোরীদের মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা তৈরি করা। এ পর্যন্ত মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের আওতায় বাংলাদেশের প্রায় ছয় হাজার কিশোর-কিশোরী বিনামূল্যে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে জানতে পেরেছে। মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে প্রচলিত কুসংস্কার, মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিক রোগসমূহ এবং মানসিক স্বাস্থ্যের যত্নে কি কি করণীয়, এর প্রতিরোধ ও প্রতিকার কি কি, এইবিষয়সমূহ বরাবরই কিশোর-কিশোরীদের শেখানোর চেষ্টা করেছে।
বর্তমানে এ সংগঠনের আওতায় দেশের প্রায় পাঁচটি বৃহত্তর নগরীর কিশোর-কিশোরীরা সরাসরি মাঠপর্যায়ের কাজে যুক্ত আছে। এই জেলা শহরগুলোর মধ্যে রাজধানী ঢাকা, বৃহত্তর বন্দরনগরী চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, বগুড়া এবং সম্প্রতি ময়মনসিংহ জেলায় মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার বিস্তার ঘটিয়েছে।

এপর্যন্ত মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার বিভিন্ন অনলাইন এবং অফলাইন কর্মশালা ও প্রজেক্টের আয়োজন করেছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি প্রজেক্টের নাম ‘প্রজেক্ট-লাইফকেয়ার’। মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের সর্বশেষ সংযোজন হিসেবে ‘প্রজেক্ট-লাইফকেয়ার’ -এর অবদান অনস্বীকার্য। এই প্রজেক্টের আওতায় দেশের প্রায় ১৫০০ শিক্ষার্থী সরাসরি মাঠপর্যায়ে মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেছে এবং বৃহত্তর কুমিল্লা নগরীর স্বনামধন্য স্কুলগুলোর মধ্যে কুমিল্লা জিলা স্কুল, কুমিল্লা কালেক্টরেট স্কুল ও কলেজ, আওয়ার লেডি অব ফাতেমা গার্লস হাইস্কুল, কুমিল্লা মডার্ণ হাই স্কুলসহ ঢাকার বিভিন্ন স্কুলে মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার এই কর্মশালার আয়োজন করেছে। উক্ত কর্মশালাসমূহে বক্তা হিসেবে মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাশফিয়া কাওসার মীম শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। উক্ত প্রশিক্ষণের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়গুলো ছিল- বয়ঃসন্ধিকালে কিশোর-কিশোরীদের মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন কীভাবে নিতে হবে ও শারীরিক স্বাস্থ্যের পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা কেমন। এছাড়াও কর্মশালাটিতে শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্যসম্পর্কিত বিভিন্ন রোগ ও এদের প্রতিকার সম্পর্কে জানানো হয়।

মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের এই দুই বছরে অনেক শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে। মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংখ্যা প্রায় ৪০ এর অধিক। মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার সবসময় চেষ্টা করেছে যেকোনো ধরনের আত্নহত্যা প্রবণ কিশোর-কিশোরীদের তাৎক্ষণিকভাবে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য। এজন্য প্রায় ৪০ এর অধিক মেন্টাল হেলথ্ এডভোকেট কাজ করেছেন মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার টীমে। মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের রয়েছে একটি সংগঠিত এডমিনিস্ট্রেশন বোর্ড, যে বোর্ড দ্বারা মেন্টাল হেলথ্ কেয়ারের সকল কার্যক্রম পরিচালিত ও সম্পাদিত হয়।

মেন্টাল হেলথ কেয়ারের এই দ্বিতীয় বর্ষ পূর্তিতে হেলথ্ কেয়ারের কলাকৌশলী সকল শিক্ষার্থী, সকল মেন্টর-এডভাইজর এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি মেন্টাল হেলথ কেয়ার কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপন করছে। সেই সাথে সকলকে আহ্বান করছে এই বছরের প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার যে কার্যক্রম তথা প্রজেক্টসমূহ হাতে নিয়েছে, সেই প্রজেক্টসমূহ সম্পন্ন করতে যেন অনুপ্রেরণা দিয়ে পাশে থাকে। মেন্টাল হেলথ্ কেয়ার সকলের নিকট কৃতজ্ঞ।