রক্তাক্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া! ঝরে গেলো আরো ৫ প্রাণ

0
2

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : পুলিশ ও বিজিবির সঙ্গে মোদিবিরোধী বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এখনো পর্যন্ত পাঁচজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ১৬ জন। শনিবার (২৭ মার্চ) সন্ধ্যা ৬টার দিকে সদর উপজেলার নন্দনপুর শিল্প এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার দবির মিয়ার ছেলে বাদল মিয়া (২৪), ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার মৈন্দ গ্রামের জুরু আলীর ছেলে সুজন মিয়া (২২) নন্দনপুরের হারিয়া গ্রামের আবদুল লতিফ মিয়ার ছেলে জুরু আলম (৩৫), সদর উপজেলার কাউসার মিয়া (২৪) ও জোবায়ের (১৪)। চলমান সংঘর্ষের ঘটনার জেরে এখনো পর্যন্ত আহত হয়েছেন অন্তত ১৬ জন। তাদের স্থানীয় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, সন্ধ্যায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তিনজনকে হাসপাতালে আনা হয় যারা হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যুবরণ করেন। উল্লেখ্য, তিনজনই গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান।

স্থানীয় সূত্রের বরাত জানা গেছে, আজ শনিবার(২৭ মার্চ) বিকেলে নন্দনপুর বাজার এলাকায় পুলিশ ও বিজিবির সঙ্গে মোদিবিরোধী আন্দোলনকারীদের তুমুল সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষ চলাকালে বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হন। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাবার পথে তিনজন এবং পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো দুজনের মৃত্যু হয়।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রানা নুরুস শামস জানিয়েছেন, সন্ধ্যার পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কাউসার মিয়া এবং জোবায়ের নামে দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়া এখনো শহরের কান্দিপাড়াস্থ জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুসিয়া সংলগ্ন এলাকায় বিক্ষিপ্তভাবে বিজিবির অভিযান এবং গুলিবর্ষণ অব্যাহত রয়েছে। এতে করে প্রাণহানির সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে জোর ধারণা করা হচ্ছে।