যারা আজ আমাকে নিয়ে এতোটা সচেতন তারা সেদিন কোথায় ছিলো : জাফরুল্লাহ চৌধুরী

0
2

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলামের ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর ঘটনায় এবার পুলিশের ভূমিকাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

আজ শনিবার (৩ এপ্রিল) ব্রাহ্মণবাড়িয়া পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, মোকতাদির চৌধুরী (স্থানীয় সংসদ সদস্য) সরাসরি পুলিশকে ব্লেইম করেছেন। তাই এ নিয়ে বিশেষ কিছু বলতে চাওয়া নিষ্প্রয়োজন। আমরা শুধু দুঃখ প্রকাশ করতে পারি। প্রেস ক্লাব অত্যন্ত পবিত্র জায়গা। প্রেস ক্লাবে আক্রমণ করা আর মসজিদে আক্রমণ করা একই কথা বলে আমি মনে করি। সাংবাদিকদের কাজ হলো সত্য তুলে ধরা, আপনারা অনেক জায়গায় সেটি করে যাচ্ছেন।

এসময় তিনি আরো বলেন, আজকে আমি শহরে (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ঢোকার আগেই তাঁরা (পুলিশ) খোঁজ নিচ্ছে আমি কোথায় যাবো না যাবো। আজ যারা আমাকে নিয়ে এতোটা সচেতন তারা ঘটনার দিন কি করে নিজেদের এতোবড়ো দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয় দিলো আমার জানা নেই।
উল্লেখ্য আজ দুপুরে তাঁর নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল প্রেসক্লাবে এলে সেখানকার সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন হামলা-ভাঙচুরের বর্ণনা দেন। এরপর প্রেস ক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামি তার ওপর করা হেফাজত কর্মী-সমর্থকদের হামলার বিষয়টি সবিস্তারে তুলে ধরেন।

এ সময় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সাথে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, ভাষানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম ও প্রেসিডিয়াম সদস্য নাঈম জাহাঙ্গীর, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইশতিয়াক আজিজ ও ব্যরিস্টার সাদিয়া আরমানসহ অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। প্রতিনিধি দলটি বিকেলে ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ঘুরে দেখেন।