আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ডজনখানেক, কে পাবেন দলীয় টিকিট?

0
8

আক্তার মাহমুদ-(যশোর):

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে দেশ জুড়ে প্রচার প্রচরণায় নেমে পড়েছেন দলের নেতারা।
তেমনি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেতে মাঠে নেমে পড়েছেন যশোর-২(ঝিকরগাছা-চৌগাছা) আসনের এম, পি প্রার্থীরা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোয়ন পেতে এবছর ঝিকরগাছা- চৌগাছা আসনে দশের অধিক নেতা মাঠে প্রচার প্রচারণা শুরু করে দিয়েছে।
পাশাপাশি থেমে নেই বিরোধী দলীয় নেতারা। তবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থীর প্রচার-প্রচারণায় যেন বেশি। বর্তমান সংসদ সদস্য থেকে শুরু করে ডজন খানেক নেতা তাদের কর্মীদের নিয়ে সমাবেশ মিছিল মিটিং করে বেড়াচ্ছেন নিজ নির্বাচনী এলাকায়।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন পেতে যারা কাজ করছেন। (১).বর্তমান সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ নাসির উদ্দিন উদ্দিন। (২)সাবেক সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির (৩)বাংলাদেশ সরকারের সাবেক জ্বালানি ও বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম(৪) জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মোস্তাফা আশীষ (দেবু) (৫)বর্তমান ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ঝিকরগাছা আওমীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনিরুল ইসলাম (৬)ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও পৌর মেয়র মোস্তফা আনোয়ার পাশা জামাল (৭)বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ আনোয়ার হোসেন (৮)জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী রায়হান (৯)জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবিএম আহসানুল (আহসান) (১০)চৌগাছা উপজেলা সাবেক ও চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম হাবিবুর রহমান (১১)উদীয়মান সমাজসেবক ডাঃতহিদুজ্জামান (তুহিন) (১২)বাংলাদেশ হিন্দু খৃষ্টান বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের সভাপতি গিলবার্ট নির্মল বিশ্বাস।

অপর দিকে, জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) প্রার্থী হিসাবে যারা আছেন, (১)বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সাবিরা সুলতানা মুন্নী সাবিরা নাজমুল, (২)জেলা বিএনপির আহব্বায়ক কমিটির সদস্য ও যশোর কমার্সের সাবেক সভাপতি মো.মিজানুর রহমান খান। (৩)জেলা-আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. মো. ইসাহক, (৪)চৌগাছা উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মো.জহুরুল ইসলাম,
(৫)বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় ইউনিট সদস্য মাও. আরশাদুল আলম। তেমনি জাতীয় পার্টি থেকে, (১)যশোর জেলা জাতীয় পাটির সদস্য সচিব হাকিম মুফতি ফিরোজ শাহ, ও (৩)জাতীয় পার্টি নেতা অধ্যাপক রেজাউল ইসলাম। তবে বর্তমানে জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) এর থেকে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ও জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের প্রচারণা বেশী দেখা যাচ্ছে।তবে, মনোনয়ন প্রার্থীদের কাছে জানতে চাইলে, বর্তমান সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অব.) ডা. অধ্যাপক মো. নাসির উদ্দীন বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার হলো উন্নয়নের সরকার। সরকারের অধিনে বিগত সাড়ে ৪ বছর যাবৎ দিনরাত পরিশ্রম করে চৌগাছা-ঝিকরগাছার ব্যাপক উন্নয়ন করেছি এবং সেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছি। পাশাপাশি
চৌগাছা-ঝিকরগাছা এই দুই উপজেলায় সন্ত্রাস, মাদক, চাঁদাবাজি বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছি। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট আমি আবারও মনোনয়ন প্রত্যাশা করছি।
সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মনিরুল ইসলাম মনির বলেন,আমি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক সংসদ থাকা কালে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের কল্যাণে ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। আবারও আগামীতে নৌকা প্রতীক পাওয়ার আশাবাদী। আমি মনোনয়ন পেলে অবশ্যই জয়লাভ করবো, ইনশাল্লাহ।

অপর দিকে বাংলাদশ সরকারের সাবেক বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, আমি বিগত সময়ে এমপি ও মন্ত্রী থাকাকালীন আমার নির্বাচনী এলাকায় সরকারের কল্যানে বহু উন্নয়ন মূলক কাজ করেছি আমি মনে করি দলীয় প্রয়োজনেই সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতিমধ্যে নির্বাচনী মাঠ প্রস্তুতে কাজ করছি।
জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. মোহাম্মাদ আলী রায়হান বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি। আমার নেত্রী শেখ হাসিনা, আমার মার্কা নৌকা। আমাকে প্রধানমন্ত্রী যদি নৌকা মার্কা দেয়, তাহলে আমি নৌকা প্রতিকে নির্বাচন করবো।
উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন আমি সাবেক উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ঝিকরগাছা উপজেলার সাধারণ মানুষের সেবা ও সাহায্য করতে পাশে দাঁড়িয়েছি। এবার দলীয়ভাবে মনোনয়ন পেলে আমি আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে চাই।
মনোয়ন প্রত্যাশী বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. এ.বি.এম এহসানুল হক আহসান বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার আবারও ক্ষমতায় আসুক। এবং আমি আমার সংসদীয় এলাকা
যশোর -২ আসন থেকে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী।
অপরদিকে থেমে নেই বর্তমান বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ আনোয়ার হোসেন। নৌকা যার আমরা তার এই স্লোগানকে সামনে রেখে আওয়ামী সরকারের উন্নয়ন প্রচার- প্রচারণায় কাজ করে যাচ্ছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য জোটের সভাপতি গিলবার্ট নির্মল বিশ্বাস ও এবার নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী।
জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মোস্তাফা আশীষ দেবু, চৌগাছা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম হাবিবুর রহমান হাবিব সহ নৌকার মনোনয়ন পেতে সকল প্রার্থী সাধারণ মানুষের কাছে গিয়ে উন্নয়ন প্রচার প্রচারণায় ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তবে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বলেন তাদের উপরের নির্দেশ মোতাবেক কাজ করছে। অপের দিকে জামায়েত ইসলাম নেতারাও কেন্দ্রীয় নির্দেশনা পালন করছে।
তবে, জাতীয়পার্টি প্রার্থীর প্রচার- প্রচারণা চলমান। দলীয়ভাবে যে সিদ্ধান্ত নিবে তারা সেটাই মেনে নেবে।
অপরদিকে, জনগণ ও স্থানীয় দলীয় নেতারা বলেন দলীয়প্রতীক নিয়ে যে আসবে আমরা তার হয়ে কাজ করব।