সমর কুমারের অপেক্ষায় হাজারো শালিকের ঝাঁক

0
120

সময়ের পাতা ডেস্ক:  কুয়াশাভেজা ভোর। তখনও সূর্য উঠেনি, ঘুম ভাঙেনি অনেকের। এমন কুয়াশার চাদরে ঢাকা ভোরে পাবনার এ হামিদ রোডের শ্যামল দই ভান্ডারের সামনে হাজির হতে থাকে ঝাঁকে ঝাঁকে শালিকের দল। সংখ্যায় হাজার খানেক, কখনো বা তার চেয়ে বেশি। বৈদ্যুতিক তার কিংবা বাসাবাড়ির ছাদ; হাজারো শালিকের এই অপেক্ষা একজনের জন্য, তিনি সমর কুমার ঘোষ।

অবশেষে বস্তাভর্তি ঝুরি চানাচুর নিয়ে সময়মতই হাজির পাবনার এই পাখিপ্রেমী। এরপর কিচিরমিচির শব্দে মুখরিত চারপাশ। নিজ আঙিনায় ছিটিয়ে দেন ঝুরি চানাচুর। উৎফুল্ল শালিকেরা খেয়ে দল বেধে ছুটে যায় দিগন্তের পানে। আর এর মাঝেই অন্যরকম এক সুখ খুঁজে পান সমর কুমার। ৫ বছর ধরে রোজ পাখিদের জন্য এই আয়োজন তার। যাতে দৈনিক খরচ হাজার টাকার বেশি। তিনি মনে করেন, এর ফলে প্রাণীকুলের সেবায় অনুপ্রাণিত হবে অন্যরাও।

সমর কুমারের এই উদ্যোগে গর্বিত পাবনাবাসী। পরিবেশ বিষয়ক সংগঠনের সাথে সম্পৃক্তরা বলছেন, সমর কুমারের পাখিপ্রেম ভূমিকা রাখবে জীববৈচিত্র্য রক্ষা ও প্রকৃতি সংরক্ষণে। তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগেকে সাধুবাদ জানিয়েছে বনবিভাগও।

সমর কুমারের বিশ্বাস, তাঁর অবর্তমানেও পাখিদের আহার যোগানোর এই উদ্যোগটুকু এগিয়ে নেবে কেউ না কেউ।