শীঘ্রই প্রকাশ পাচ্ছে কাব্যগ্রন্থ “জীবন মানে সংগ্রাম”

0
4

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: রংপুর বিভাগীয় লেখক সম্মাননা ও কবি সনদপত্র প্রাপ্ত উত্তরাঞ্চলে আলোচিত কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার চারন কবি শাহাজামাল রচিত ২য় কাব্যগ্রন্থ “জীবন মানে সংগ্রাম” অসন্ন অমর একুশে/২০২১ বই মেলায় আতœপ্রকাশ হতে যাচ্ছে। সেজন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করে এর অনুলিপি রংপুর সাফল্য প্রাকাশনিতে প্রেরন করা হয়েছে। বইটি একুশে’র মেলায় মোড়ক উম্মচনের মধ্যদিয়ে প্রকাশ পাবে। এছাড়াও বই মেলায় থাকছে কবি রচিত ছন্দময় কবিতার কিছু চটি বই।
প্রকাশ থাকে যে, কবি শাহাজামাল একজন দরিদ্র কবি। কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার নিভৃত পল্লী পত্রনবিশ গ্রামের তাঁর জন্ম। শিক্ষাগত যোগ্যতা মাত্র ৫ম শ্রেণী পাশ। অভাবী সংসার তার। পেশায় কাঁঠমিস্ত্রী। কাঁঠমিস্ত্রী থেকে কবি শাহাজামাল সমাজে এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। শাহাজামাল বাল্যকাল থেকে বাংলা সাহিত্য চর্চায় খুবই আগ্রহী। তাই সংসারের অভাব-অনটন তাঁর অদম্য ইচ্ছা শক্তিকে হার মানাতে পারেনি। সারাদিন কর্ম ব্যস্ততায় থাকলেও নিস্তব্ধ রজনীতে তাঁর মনের ভিতরকার সাহিত্যের ফুল ঝুড়ি বেড়িয়ে এসেছে। গোধুলীলগ্ন থেকে সারা রাত কেটে যায় ব্যাকুল হৃদয়ের বাংলা কবিতা ও গল্প লিখতে। তিনি আর্থিক ভাবে দেশ ও সমাজকে কিছু দিতে না পারলেও লেখনির মাধ্যমে দিকে চান। প্রতিভাময় এই গ্রাম্য কবির সাথে সাক্ষাত হয় স্থানীয় সাংবাদিক ফয়জার রহমান রানুর। লেখা গুলি দেখে মুগ্ধ হন তিনি। বৈচিত্রময় এই গ্রাম-বাংলার মানুষের ভাব-ভাষা-সাহিত্য যেন ফুটে আছে সেই ছন্দময় প্রতিটি গল্প-কবিতায়। অপসাহিত্য-সংস্কৃতির যুগে বাংলা সাহিত্যের ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে শাহাজামালের মতো কালের অবর্তে লুকিয়ে থাকা লেখক, কবি-সাহিত্যিকদের সমাজে বেড়িয়ে আসা দরকার। তাই, বিগত ২০১৮ ইং সালের নভেম্বরে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় কবির স্বচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ পায়। যা দেখে বই প্রকাশে তাঁর কাছে এগিয়ে আসা কিছু দাতব্য ব্যক্তির আর্থিক সহায়তায় ‘রংপুর পাতা প্রকাশ কোয়ালিটি পাবলিকেশন’ এ তাঁর সংরক্ষিত পান্ডুলিপীর ছন্দময় ৬০টি কবিতা নিয়ে ‘আলোর পথে’ নামক প্রথম একটি কাব্য গ্রন্থ তৈরি হয়। যেটি গত ২২ ফেব্রæয়ারী/২০১৯ইং তারিখে জেলা শিশু নিকেতন চত্বরে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক আয়োজিত বই মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে মোড়ক উম্মচন করা হয়। বইটি বিপনন হওয়ার সাথে সাথেই এলাকায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। কবি শাহাজামাল রচিত বই এখন স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী সহ বই পাগল মানুষগণ পড়ছেন।
এরপরে তিনি পত্র-পত্রিকাসহ বিভিন্ন টিভি চ্যানেল ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সম্প্রচারিত হন। এবং ব্যাপক অলোচিত হন। ফলে, সাফল্য সাহিত্য সংস্কৃতি পরিবার, বাংলাদেশ’র দৃষ্টি গোচর হন। এবং সাফল্য প্রকাশনীর আয়োজনে ১২ ডসিম্বের/২০২০ রংপুরের ব্র্যাক লার্নিং সেন্টার মিলনায়তনে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কবি-লেখকদের মিলন মেলায় কবি সনদপত্র প্রাপ্ত হন। এসময় প্রধান অতিথি বিশিষ্ট কবি এডভোকেট জাকিয়া তাবাসসুম জুঁই এম,পি কবির হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন।