লিটনের খুনীরা যেই হোক না কেন, তাদের বিচার হবে-ওবায়দুল কাদের

0
65

 

সময়ের পাতাঃ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন- এই উত্তরবঙ্গ ছিল আমাদের হাজার বছরের স্বাধীনতা সংগ্রামের দীর্ঘ সময় ধরে মহাবিদ্রোহের। এখান থেকেই তিতুমীরের বাশেঁর কেল্লা, বৃটিশ বিরোধী আন্দলোন, ফকির মজনু শাহ, ফকির ঈশা খাঁ, সাঁওতাল বিদ্রোহসহ একটি একুশের পরে আর একটি একুশের চেতনার। এই সুন্দরগঞ্জ, গাইবান্ধা, রংপুর তথা এই উত্তরবঙ্গ স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছে। এই বাংলাকে স্বাধীন করেছে। গাইবান্ধার মানুষ, সুন্দরগঞ্জের মানুষ, রংপুরের মানুষ কোন দিন ভয় পাইনি, ভয় পায়না। আপনারা আমাদের পাশে থাকেন, আমরা আপনাদের পাশে আছি, পাশে থাকবো-ইনশাল্লাহ্। আজ বিকালে সুন্দরগঞ্জ ডি ডব্লিউ ডিগ্রি কলেজ মাঠে নাগরিক কমিটির আয়োজনে প্রয়াত এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন স্বরণে নাগরিক শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি হুসিয়ারী করে বলেন- লিটনের রক্তের দাগ এখনো শুকায়নি। লাশ নিয়ে কেউ রাজনীতি করবেন না। লাশ নিয়ে রাজনীতি করলে এর পরিনাম ভাল হবে না। লিটনের হত্যাকারীরা যত বড় ক্ষমতা ধরই হোক না কেন, তাদের বিচার এই বাংলার মাটিতে হবেই- হবে। মন্ত্রী উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের উদ্দেশ্যে বলেন- লিটনের রক্তের দাগ শুকায়নি। এই সুন্দরগঞ্জে স্বাধীনতা বিরোধী চক্রকে লিটনই উৎখাত করেছিল। তাই, মনোনায়ন নিয়ে কেউ কারাকারি করবেন না। যে মনোনায়ন পাবে, সেই হবে লিটনের উত্তরশুরী।
নাগরিক কমিটির আহব্বায়ক- গোলাম মোস্তফা আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি, সাবেক মন্ত্রী জাহাঙ্গির কবির নানক এমপি, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি, হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি এমপি, বি এম মোজাম্মেল হক এমপি, সুজিত রায় এমপি, খালিদ মাহমুদ এমপি, বাহা উদ্দিন নাসিম এমপিসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।