দ্বিতীয় মেয়াদে মাভাবিপ্রবির ভিসি হলেন ড. আলাউদ্দিন

0
74

নিউজ ডেস্কঃমাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে ভাইস চ্যান্সেলর হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সাবেক প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর এবং অনুপ্রাণ ও প্রাণ রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ আলাউদ্দিন। বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) রাষ্ট্রপতি ও মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ আলাউদ্দিনকে দ্বিতীয় মেয়াদে পরবর্তী ০৪ (চার) বছরের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর হিসেবে পুন: নিয়োগ প্রদান করেন।

somoyer9

গত ৪ মে তার মেয়াদ শেষ হওয়ার ২ মাস ২৩ দিন পর তাঁকে দ্বিতীয় মেয়াদে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হয়। আগামী ২৯ জুলাই শনিবার তিনি কর্মস্থলে যোগ দিবেন বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে।

ড. মোঃ আলাউদ্দিন সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর উপজেলার মাজনাবাড়ী গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৫৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭০ সালে ঢাকা বোর্ড থেকে কৃতিত্ত্বের সাথে এসএসসি ও ১৯৭২ সালে এইচএসসি এবং ১৯৭৬ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএসসি (অনার্স) ও ১৯৭৭ সালে এমএসসি (থিসিস) এবং ১৯৯০ সালে দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি ছাত্র জীবনে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মোশারফ হোসেন হলের প্রথম নির্বাচিত জিএস ছিলেন।

তিনি ১৯৮১ সালের ১০ আগষ্ট চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগে প্রভাষক পদে যোগদান করে শিক্ষকতা পেশায় কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৯৫ সনে অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন। ১৯৯৭ সনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগ প্রতিষ্ঠিত হলে প্রথমে ১৬ মার্চ ১৯৯৭ থেকে ২০ জুন ১৯৯৯ সন পর্যন্ত উক্ত বিভাগের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এবং ২১ জুন ১৯৯৯ থেকে ২০ জুন ২০০৫ সন পর্যন্ত দুই মেয়াদে ০৬ (ছয়) বছর চেয়ারম্যান ছিলেন। ১৯৯৯ সনের ২১ জুন রসায়ন বিভাগ থেকে প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপকের স্থায়ী পদে নিয়োগ লাভ করেন। এ যাবৎ দেশি-বিদেশী বিভিন্ন জার্নালে তাঁর ৪১ (একচল্লিশ) টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।

প্রফেসর ড. মোঃ আলাউদ্দিন চট্ট্রগাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন হলে হাউজ টিউটর, হল প্রভোস্ট (ভারপ্রাপ্ত), সহকারী প্রক্টর, শিক্ষক প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত সিন্ডিকেট সদস্য (দুইবার) এবং শিক্ষক প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য (বর্তমান পর্যন্ত), ফাইন্যান্স কমিটির সদস্য (১৯৯৯-২০০২), চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিকেশন কমিটির সদস্য (১৯৮৫-১৯৮৬), পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য (১৯৯৯-২০০২), জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য তিনবার (১৯৯৪ থেকে ১৯৯৭ পর্যন্ত রেজিস্টার গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি হিসেবে একবার ও ১৯৯৭ থেকে ২০০২ পর্যন্ত দুইবার চ্যান্সেলর কর্তৃক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ হিসেবে মনোনিত হয়ে) চ্যান্সেলর কর্তৃক মনোনিত একাডেমিক কাউন্সিল সদস্য হিসেবে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (২০০৮ থেকে ২০১১) ও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (২০০৮ থেকে বর্তমান পর্যন্ত) এবং কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে সিন্ডিকেট সদস্য হিসেবে (২০০৮ থেকে বর্তমান পর্যন্ত) দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি পদাধিকার বলে ১৯৯৫ সন থেকে বর্তমান পর্যন্ত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল ও বোর্ড অব এ্যাডভান্স স্টাডিজ-এর সদস্য, ১৯৯৭-১৯৯৯ পর্যন্ত চট্টগ্রাম কলেজের গভর্নিং বোর্ড-এর সদস্য (অভিভাবক প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত), চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির যুগ্ম-সম্পাদক (১৯৮৬), সাধারণ সম্পাদক তিনবার (১৯৮৭, ১৯৯৬ ও ১৯৯৭), সদস্য তিনবার (১৯৯৫, ১৯৯৮ ও ২০০৬), বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সদস্য তিনবার (১৯৮৭, ১৯৯৬ ও ১৯৯৭), চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক (১৯৯৩) এবং সভাপতি (২০০২), এবং চট্টগাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়া উপদেষ্টা কমিটির সদস্য (২০০৯) সহ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা জীবনের পাশাপাশি আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।

উল্লেখ্য, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪র্থ ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. এম. নুরুল ইসলামের নিয়োগের মেয়াদ ২০১৩ সালের ৩ মে ৪ (চার) বছর পূর্ণ হওয়ায় তাঁর স্থলে ৫ম ভাইস-চ্যান্সেলর হিসেবে প্রফেসর ড. মোঃ আলাউদ্দিন ০৪ (চার) বছরের জন্য নিয়োগ পান। এবার তিনি দ্বিতীয় মেয়াদে ৬ষ্ঠ ভাইস চ্যান্সেলর হিসেবে নিয়োগ পেলেন।

এ ব্যাপারে দ্বিতীয় মেয়াদে সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ আলাউদ্দিন ক্যাম্পাস টাইমসকে বলেন, আমি অতীতেও সকলকে সাথে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ও দেশের স্বার্থে সততার সাথে ও একনিষ্ঠ ভাবে কাজ করেছি । ভবিষতেও সেভাবে কাজ করার জন্য সকলের আন্তরিক সহযোগীতা আমার কাম্য।