নাসিরনগরের ঘটনায় আটক আখিঁকে ৭ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ

0
52

আমিরজাদা চৌধুরী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দুদের বাড়ি-ঘর ও মন্দিরে হামলা ভাংচুরের ঘটনায় সন্দেহভাজন মূলহোতা হরিপুর ইউপির চেয়ারম্যান দেওয়ান আতিকুর রহমান আঁখিকে গৌর মন্দির ভাংচুর মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এদিকে গৌর মন্দিরে হামলা এবং ভাংচুরের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত হরিপুরের আওয়ামী লীগ দলীয় ইউপি চেয়ারম্যান দেওয়ান অতিকুর রহমান আখিঁকে শুক্রবার আদালতে হাজির করে পুলিশ। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা বেগম এর বিচারিক আদালতে হাজির করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন প্রার্থনা করে। আদালত আগামী রোববার শুনানীর দিন ধার্য করে। এরপর আসামীকে জেলা কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেয়।

পুলিশ জানায়, ৩০ অক্টোবর গৌর মন্দির ভাংচুর ঘটনায় মন্দির পরিচালানা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল চৌধুরীর বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। এ মামলায় কারো নাম উল্লেখ করা না হলে ও অজ্ঞাত সাড়ে ১২০০ জনকে আসামি করা হয়। মামলায় গ্রেফতার ট্রাক চালক নুরুল ইসলামসহ কয়েকজন আদালতে ১৬৪ ধারায় দেয়া জবানবন্দিতে জানায়, হরিপুর ইউনিয়ন থেকে কয়েকটি ট্রাকে করে অনেক মানুষকে নাসিরনগর উপজেলা সদরে পাঠানো হয়। এর মধ্যে আঁখি কয়েকটি ট্রাকের ব্যবস্থা ও ভাড়ার যোগান দেয়।

বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকার ভাটারা থেকে তাকে আটক করে। পরে গৌরমন্দির ভাঙচুর মামলায় গ্রেফতার দেখায় পুলিশ। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীদের জবানবন্দিতে আখিঁর নাম চলে আসে।

কোর্ট ইন্সপেক্টর মাহবুবুর রহমান জানান, বন্ধের দিন থাকায় পরবর্তী কার্যদিবসে এ বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। এ ঘটানার পেছনে তার প্রেরণা ও অর্থের যোগান ছিল এবং পুলিশ নির্ভরযোগ্য তথ্যের ভিত্তিতেই তাকে গ্রেফতার করেছে বলে জানায়।