উন্মুক্ত হলো লুই আইকানের নকশা

0
30

সময়ের পাতা ডেস্ক: খোলা হয়েছে লুই আইকানের নকশা। ওই নকশায় কেবল সংসদ ভবন ও ওই এলাকার কয়েকটি স্থাপনার নকশা রয়েছে বিষয়টি এমন নয়। সেখানে লুই আইকানের করা ৮৫৩টি স্থাপনার নকশা মিলেছে। এরমধ্যে সংসদ ভবন একটি। বাদ বাকিগুলো ওই এলাকার বিভিন্ন স্থাপনাসহ অন্যান্য নকশা। পেনসিলভেনিয়া থেকে আনা নকশার চার সেটের মধ্যে একটি সেট খোলা হয় রোববার। নকশা খোলার সময়ে সেখানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদ কার্যালয়ের প্রতিনিধি, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, স্থাপত্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্পিকারের কার্যালয় সহ সংশ্লিষ্ট কার্যালয়ের প্রতিনিধি। তাদের সকলের উপস্থিতিতে ওই নকশার সেট খোলা হয়। একটি সেট খোলা হলেও বাকি তিনটি সেট পেনভেনিয়া ইুইনভারসিটি থেকে যেভাবে দেওয়া হয়েছে ওইভাবে মুখ বন্ধ করে রাখা হয়েছে। আপাতত সেগুলো বন্ধই থাকবে। যখন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে ওই সব নকশার সেট কোন কোন কার্যালয়কে দেওয়া হবে, তখন তাদেরকে সেগুলো হস্তান্তর করা হবে। হস্তান্তরের পর স্ব স্ব কর্তৃপক্ষ তা খুলবে।
জাতীয় সংসদের স্পিকারের কার্যালয়ের সূত্র জানায়, নকশা খোলার পর সেগুলো পর্যালোচনার কাজ শুরু করা হয়েছে। এরমধ্যে কোন কোন স্থানে কি কি স্থাপনা আছে সেগুলো চিহ্নিত করা হচ্ছে। এরপর একটি তালিকা তৈরি করা হবে। ওই কমিটি পর্যালোচনা করার পর একটি রিপোর্ট দিবে। ওই রিপোর্টের আলোকেই পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন জাতীয় সংসদের স্পিকার।
জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী বলেন, রোববার লুইআইকানের নকশা খোলার পর সেখানে দেখা গেছে ৮৫৩টি স্থাপনার নকশা করেছিলেন তিনি। এরমধ্যে অনেকগুলো স্থাপনা তৈরি হয়েছিলো। আর অনেকগুলো স্থাপনা তৈরি হয়নি। যেসব স্থাপনাগুলো তৈরি হয়েছে, সেগুলোর তালিকা করা হবে। আর সেগুলো যথাযথভাবে নকশা অনুযায়ী করা হয়েছে কিনা কমিটি তা খতিয়ে দেখবে। তবে এটা হবে পরবর্তী কাজ। এছাড়াও যে সব স্থাপনাগুলো তৈরি হওয়ার কথা ছিলো  কিন্তু এরমধ্যে হয়নি সেগুলো চিহ্নিত করা হবে। লুই আইকানের নকশার মধ্যে বাস্তবায়ন হয়নি এমন ভবন ও স্থাপনাগুলোরও আলাদা করে একটি তালিকা করবেন ওই কমিটি। তাহলে স্পষ্ট হবে লুই আইকানের নকশার কতখানি বাস্তবায়িত হয়েছে আর কতখানি বাস্তবায়িত হয়নি।