সরকার বা বিরোধী দলের ফাঁদে পড়বো না- প্রধান বিচারপতি

0
9

নিউজ ডেক্সপ্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহা বলেছেন, আমরা সরকার বা বিরোধীদলের ট্র্যাপে (ফাঁদে) পড়ব না। রায় নিয়ে গঠনমূলক সমালোচনা হতে পারে। কিন্তু গঠনমূলক সমালোচনা না হলে বিচার বিভাগ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

somoyer11

বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নিয়মিত কার্যক্রম শুরুর এক পর্যায়ে তিনি উপস্থিত আইনজীবীদের উদ্দেশ্য করে এসব কথা বলেন।

এর আগে ষোড়শ সংশোধনীর রায় নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সাবেক প্রধান বিচারপতি ও আইন কমিশনের চেয়ারম্যান এবিএম খায়রুল হকের দেওয়া বক্তব্য প্রধান বিচারপতির নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। তখন প্রধান বিচারপতি একথা বলেন।

এ সময় জয়নুল আবেদীনকে উদ্দেশ্য করে প্রধান বিচারপতি বলেন, আপনারা সংযত থাকবেন। রায় নিয়ে রাজনীতি করবেন না, ইতিহাসই একদিন এ রায়ের বিচার করবে।

বুধবার জাতীয় আইন কমিশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে খায়রুল হক বলেন, আমি ষোড়শ সংশোধনীর রায় পড়ে দেখেছি যে এই রায়ে অনেক অপ্রাসঙ্গিক মন্তব্য রয়েছে। যেসব কথার কোনো প্রয়োজনই এই রায়ে ছিল না।

রায়ের সমালোচনা করে তিনি বলেন, সংবিধানে ১নং অনুচ্ছেদে গণপ্রজাতন্ত্রের কথা বলা হয়েছে। কিন্তু এই রায় দেশকে বিচারিক প্রজাতন্ত্রের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এর মাধ্যমে মার্শাল ল’ আমলে চলে যাওয়ার চেষ্টা চলছে।

ষোড়শ সংশোধনীর রায়ে সংবিধানের অপব্যাখ্যা করা হয়েছে উল্লেখ করে খায়রুল হক বলেন, সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল ফিরিয়ে আনতে হলে আবারও সংবিধান সংশোধন করতে হবে। সংবিধানে যেহেতু সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল ছিল না। সেহেতু এটা রাখা সংবিধান পরিপন্থী বলেও মনে করেন তিনি।

সাবেক এ প্রধান বিচারপতি বর্তমান প্রধান বিচারপতিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, প্রধান বিচারপতি কি প্রধান শিক্ষক নাকি, আর অন্য বিচারপতিরা ছাত্র নাকি, যে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের মাধ্যমে তাকে (প্রধান বিচারপতি) অন্য বিচারপতিদের পরিচালনা করতে হবে? সংবিধানের ৯৪ (৪) অনুচ্ছেদ অনুসারে তো বিচারপতিরা সবাই স্বাধীন।

তিনি বলেন, যেখানে দুদককে চিঠি দিয়ে সাবেক বিচারপতির বিরুদ্ধে তদন্ত বন্ধ করতে নির্দেশ করে সেখানে তাদের ওপর (সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের সদস্য বিচারপতিদের) নির্ভর করব কীভাবে?

এদিকে, ষোড়শ সংশোধনীর রায় নিয়ে আনুষ্ঠানিক মত দিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

দুপুরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের কাছ থেকে জাতীয় সংসদের হাতে দেওয়া ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে দ্বিমত থাকলেও সরকার এ রায়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।

রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ করার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।