নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেন ভারতের ক্যাপ্টেন কুল

0
20

এস এম মুনজিলঃ

শচীন-রাহুল দ্রাবিড়-সৌরভ গাঙ্গুলী মিলেও ভারতকে ২০০৭ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের বৈতরণী পার করাতে পারেননি। বাংলাদেশের কাছে সেবার অধিনায়কত্ব হারান রাহুল দ্রাবিড়। তারও আগে থেকেই টি২০ ক্রিকেটের ঘোর বিরোধী ছিল ভারত। এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম টি২০ বিশ্বকাপে দলও পাঠাতে চায়নি তারা। শেষ পর্যন্ত আইসিসি ও অন্য দেশগুলোর চাপে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে অনেকটা দায়সারাভাবেই বিশ্বকাপে দল পাঠায় ভারত। আর পরেরটা তো ইতিহাস। ফাইনালে পাকিস্তানকে হারানোর মধ্য দিয়ে বদলে যায় ভারতের ক্রিকেটের চেহারাটাই।

একই বছর ওয়ানডে দলেরও নেতৃত্ব পান ধোনি। এরপর ২০০৮ সালে নাগপুরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্টে ভারতকে নেতৃত্ব দেন ক্যাপ্টেন কুল। তাঁর নেতৃত্বেই টি২০ বিশ্বকাপ জয়ের পর টেস্ট ক্রিকেটেও শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পরে ভারত। এরপর ধোনির নেতৃত্বে জয় করেছে ২০১১ সালের বিশ্বকাপও। বিশ্বকাপ বাদে ২০১৪ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিও জেতান ধোনি। সে বছরের ডিসেম্বরে হুট করেই টেস্ট থেকে অবসর নেন ধোনি। বুধবার সরে গেলেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব থেকেও। শোনা যাচ্ছে, বিরাট কোহলিকে নিজের দল গোছানোর সময় দিতেই নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন ধোনি। অবশ্য আসন্ন ইংল্যান্ড সিরিজের দলে থাকছেন ক্যাপ্টেন কুল।

ধোনির নেতৃত্বে ১১০টি ওয়ানডে জিতেছে ভারত। অধিনায়ক হিসেবে ধোনির ওপরে রয়েছেন কেবল রিকি পন্টিং। অসি অধিনায়ক ১৬৫ ম্যাচে দেশকে জেতান। তবে মোট ম্যাচের হিসাবে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন ধোনি। পন্টিং অস্ট্রেলিয়াকে ২৩০ ম্যাচে ও স্টিফেন ফ্লেমিং ২১৮ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে নেতৃত্ব দেন। ভারতের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭৪ ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেন আজহারউদ্দিন। টি২০-তে ধোনির রেকর্ডের আশপাশেও কেউ নেই। তাঁর অধিনায়কত্বে ৭২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচের ৪১টিতে জিতেছে ভারত। ২৭ জয় নিয়ে ধোনির পরে রয়েছেন ড্যারেন স্যামি।

ওয়ানডেতে ধোনির গড়টা তো বরাবরই ঈর্ষণীয়। উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে ধোনির (৫৩.৯২) ওপরে রয়েছেন কেবল ডি ভিলিয়ার্স (৬৫.৯২)। তবে ম্যাচ জয়ের দিন ধোনির ব্যাটিং গড়টা ৭০.৮৩। গড়ে তার চেয়ে এগিয়ে কেবল ডি ভিলিয়ার্স ৮৫.৪১ ও শচীন টেন্ডুলকার ৭৫.৫৫। তবে ডি ভিলিয়ার্স দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৪৯ ও শচীন মাত্র ২৩ ম্যাচে ভারতকে জেতান। সেখানে ধোনি ভারতকে জিতিয়েছেন ১১০ ম্যাচে।

রান তাড়া করে দলকে জেতানোর ক্ষেত্রে অন্য সবার চেয়ে যোজন যোজন ব্যবধানে এগিয়ে ধোনি। ওয়ানডেতে ২৬ বার আর টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১২ বার অপরাজিত থেকে দলকে জেতান তিনি। অধিনায়কদের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পাঁচবার অপরাজিত থেকে দলকে জেতান জর্জ বেইলি।