চ্যাম্পিয়নস লিগ বার্সার, গবেষণা থেকে অনুমান

0
28

প্রতিপক্ষ হিসেবে পিএসজি বেশি কঠিনই। বার্সেলোনার তাতে কী এসে যায়! শেষ ষোলোতে পিএসজি-বাধা তো পেরোবেই বার্সেলোনা। এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগই যে জিততে চলেছে কাতালান ক্লাবটি! সম্প্রতি উয়েফা একটি গবেষণার ফল থেকে অনুমান করেছে এটি।বার্সারআজ পার্ক ডি প্রিন্সেসে শেষ ষোলোর প্রথম লেগের আগে পর্যন্ত ৯টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বার্সা-পিএসজি। এগিয়ে আছে বার্সেলোনাই। তাদের চারটি জয়ের বিপরীতে পিএসজি জিতেছে দুটি ম্যাচ। বাকি তিনটি ম্যাচ হয়েছে ড্র। এই ম্যাচ খেলতে নামার আগে উয়েফার গবেষণার ফল মেসি-নেইমারদের নিঃসন্দেহে আরও চাঙা করে তুলবে।
গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন
২০১০ সাল ছাড়া সর্বশেষ ১১ বারের চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী দলই গ্রুপ পর্ব শেষ করেছিল শীর্ষে থেকে। ২০১০ সালে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল দ্বিতীয় স্থানে থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করা ইন্টার মিলান। ম্যানচেস্টার সিটিকে হারিয়ে এবার গ্রুপ সেরা হয়েই শেষ ষোলোতে উঠেছে বার্সেলোনা। এবার শিরোপা জয়ে ফেবারিট দলগুলোর মধ্যে আছে রিয়াল মাদ্রিদ, বায়ার্ন মিউনিখ আর পিএসজিও। তিনটি দলই শেষ ষোলোতে উঠেছে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে।
রক্ষণের ভারসাম্য
সাম্প্রতিক ইতিহাস বলে টুর্নামেন্টের বিজয়ী দলের রক্ষণভাগ খুব বেশি ভালো হওয়ার প্রয়োজন নেই, আবার বেশি বাজেও হতে পারবে না। ২০০৩ সাল থেকে গ্রুপ পর্বে সবচেয়ে কম গোল খাওয়া কোনো দল চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে পারেনি। এবার গ্রুপ পর্বে সবচেয়ে কম গোল হজম করেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ও জুভেন্টাস। গ্রুপ পর্বে আটের চেয়ে বেশি গোল খাওয়া দলের ভাগ্যেও শিরোপা জোটেনি। এ মৌসুমে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড, বেনফিকা, ম্যানচেস্টার সিটি ও রিয়াল মাদ্রিদ গ্রুপ পর্বে আট গোলের বেশি খেয়েছে।
ফেবারিটের বাইরে কেউ?
চ্যাম্পিয়নস লিগের বর্তমান ফরম্যাটে প্রথমবারের মতো নকআউটে উঠে শিরোপা জিততে পারেনি। ২০০৬ সালে ভিয়ারিয়াল বেশ কাছে গিয়েছিল। কিন্তু আর্সেনালের কাছে হেরে সেমি-ফাইনাল থেকে ছিটকে পড়ে। এই পরিসংখ্যান বলে, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন লেস্টার সিটি শেষ ষোলোতে উঠলেও তাদের শিরোপা জয়ের সম্ভাবনা নেই।
প্রথম শিরোপা?
গত ১৯ মৌসুমে ইউরোপিয়ান কাপে কোনো দলের প্রথম শিরোপা জেতার নজির একটিই আছে—২০১২ সালে চেলসি তাদের ইতিহাসে প্রথম শিরোপা জিতেছিল। এবার শেষ ষোলোতে ওঠা বেশ কয়েকটি দলের সামনে তাদের ইতিহাসে প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের হাতছানি। এই দলগুলো হচ্ছে আর্সেনাল, অ্যাটলেটিকো, লেস্টার, বেয়ার লেভারকুসেন, ম্যানচেস্টার সিটি, মোনাকো, নাপোলি, পিএসজি ও সেভিয়া।