হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় লাখ লাখ ইসরাইলি হতাহত হবে

0
33

সময়েরপাতা : লেবাননের হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্রগুলো হাইফা বন্দর নগরীতে আঘাত হানলে কমপক্ষে ২০ হাজার ইসরাইলি হামলার প্রথম মুহূর্তেই নিহত এবং লাখ লাখ আহত হতে পারে। ইসরাইলের মন্ত্রিসভার এক সামরিক উপদেষ্টা এ কথা বলেছেন।

লেবাননের জনপ্রিয় ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর পাল্লা ও ধ্বংসাত্মক ক্ষমতা বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে তিনি এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। হাইফা বন্দরে ইসরাইলের অনেক রাসায়নিক স্থাপনা থাকায় এতো ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হবে বলে কর্মকর্তারা গভীর আতঙ্কের কথা জানিয়েছেন।

ইসরাইলের দৈনিক হারেৎজে প্রকাশিত এই খবরে বলা হয়েছে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইসরাইলের ওই সামরিক উপদেষ্টা বলেছেন, হাইফা বন্দরের রাসায়নিক কারখানাগুলো কিংবা ইসরাইলি পরমাণু স্থাপনাগুলোর ওপর হামলার বিপদ এখন কোনো ঠাট্টা বা জল্পনা-কল্পনার বিষয় নয়, বরং একটি সুনিশ্চিত বিপদ; কারণ হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর পাল্লা ও ধ্বংসাত্মক ক্ষমতা ক্রমেই বাড়ছে এবং একইসাথে লক্ষ্যবস্তুর ওপর এইসব ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাত যথাযথ হওয়ার মাত্রাও বাড়ছে। আর তাই এই বিপদকে আগের চেয়েও বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিত।

২০০৬ সালে ৩৩ দিনের যুদ্ধের সময় হিজবুল্লাহর কাছে যত ক্ষেপণাস্ত্র ছিল বর্তমানে এই দলটির হাতে তার চেয়ে দশ গুণ বেশি ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে বলে ওই বিশেষজ্ঞ তার ওই গোপন প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন। তার এই প্রতিবেদন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু এবং ইসরাইলি নিরাপত্তা বিভাগগুলোর কাছে জমা দেয়া হয়েছে।

হিজবুল্লাহ বেশ কয়েক মাস আগে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছিল অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল যদি লেবাননের ওপর যুদ্ধ চাপিয়ে দেয় তাহলে সেখানকার পরমাণু স্থাপনা ও হাইফা শহরের রাসায়নিক স্থাপনাগুলো হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলার টার্গেট হবে।

সূত্র : ওয়েবসাইট